বাংলাদেশি প্রার্থী ডঃ ভুঁইয়ার প্রচারণা এখন তুঙ্গে।। চলছে তহবিল সংগ্রহের প্রীতিভোজ, গণ-যোগাযোগ

জর্জিয়াবাংলা নিউজঃ যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের জর্জিয়া ডিসট্রিক্ট-৬ আসনের আসন্ন বিশেষ নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কংগ্রেসম্যান প্রার্থী ডঃ মুহাম্মদ আলী ভুঁইয়ার নির্বাচনী প্রচারণা বলতে গেলে এখন তুঙ্গে। নির্বাচনের প্রত্যাশিত সেই দিনটি যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই নির্বাচনী এলাকার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের সকল শহরে, পাড়ায়, বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে, মলে, আবাসিক এলাকায় ভোটারদের সরব প্রচারণায় নির্বাচনী হাওয়া উত্তপ্ত হয়ে ওঠেছে। ডঃ ভুঁইয়াকে নির্বাচনে জয়ী করতে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশি কমিউনিটির সংগঠক, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীসহ অন্যান্য অভিবাসী ভোটার ও মূলধারার কৃষ্ণাঙ্গ শ্বেতাঙ্গরাও।

উল্লেখ্য, নির্ধারিত সময়কালে প্রার্থীদের দাখিলকৃত মনোনয়ন পত্রের মধ্যে চূড়ান্তভাবে বৈধ প্রার্থীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এখন মোট ১৮ জন। এর মধ্যে ডঃ ভুঁইয়াই একমাত্র বাংলাদেশি তথা এশিয়ান মুসলিম প্রার্থী হিসেবে সকলের সুনজর কাড়তে সক্ষম হয়েছেন। আর বাদবাকী ১৭ জনই এদেশের মূলধারার শ্বেতাঙ্গ ও কৃষ্ণাঙ্গ প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন। আর এই দৃষ্টিকোণ থেকে ডঃ ভূঁইয়া যদি এশিয়ার অভিবাসী নাগরিক তথা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলিম অভিবাসী নাগরিকসহ ভারতীয় ও বাংলাদেশিদের ভোটপ্রাপ্তিতে নিশ্চিত হতে পারেন, তবে এই দেড় ডজন প্রার্থীর ভিড়ের মধ্য থেকে তিনি অনায়াসেই বিজয়ের মুকুট অর্জন করতে সমর্থ হবেন বলে বিশ্লেষকগণ মনে করছেন।

স্মরণ করা যেতে পারে, যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের জর্জিয়া ডিসট্রিক্ট-৬ আসনের দীর্ঘদিনের ঝানু কংগ্রেসম্যান চিকিৎসক টম প্রাইজের ট্রাম্প প্রশাসনের হিউম্যান ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্বগ্রহণের কারনে তাঁর সেই শূন্যপদটি পূরণে এই উপনির্বাচন বা বিশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ১৮ এপ্রিল তারিখে। তবে ভোটারগণ আগাম ভোট দিতে পারবেন আগামী ২৫ মার্চ তারিখ থেকে।

অনেকের মতে, জাতীয় নির্বাচনে প্রথা অনুযায়ী রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টি থেকে মনোনীত একজন করে মোট দুইজন এবং সেইসাথে কোন স্বতন্ত্র প্রার্থী থাকলে বড়জোর তিন বা চারজন প্রার্থীর মধ্যে এই নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়ে থাকে। কিন্তু আসন্ন নির্বাচনটি শূন্য আসন পূরণের বিশেষ নির্বাচন হওয়ায় সেই প্রচলিত বিধানটি কার্যকর হচ্ছে না বলে অংশগ্রহণেচ্ছুক সকল প্রার্থীই যার যার মত নির্বাচনী লড়াইয়ে সামিল হয়েছেন। আর এই হিসেব থেকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা অধিক হওয়ায় সুবাদেই অসংখ্য প্রার্থীর ডামাডোলের ভেতর থেকে ডঃ ভুঁইয়ার জয়যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি বলে ধারনা করা হচ্ছে।

এদিকে গত ১ মার্চ সন্ধ্যায় আটলান্টার ভারতীয় অধ্যুষিত গ্লোবাল মলের ইভেন্ট হলে আয়োজিত এক নির্বাচনী  তহবিল সংগ্রহের ভোজসভায় অসংখ্য ভারতীয়, পাকিস্তানী, বাংলাদেশি তথা এশিয়ান অভিবাসী আমেরিকান নাগরিকদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ লক্ষ করা গেছে।  উক্ত সফল অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সকল আমন্ত্রিত অতিথিগণ  ডঃ ভুঁইয়াকে ভোট দেয়ার একটি শক্তিশালী প্রেরণা ও অঙ্গীকারে উজ্জীবিত হতে দেখা গেছে।

উক্ত ভোজ সভায় যৌথভাবে চেয়ারম্যান হিসেবে আসন অলংকৃত করেন তিন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী যথাক্রমে গ্লোবাল মলের সত্ত্বাধিকারী অধ্যাপক জগদীশ শেঠ, শিভ আগারওয়াল ও আলি কুট। ইভেন্ট হোস্ট ও স্পনসর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসহাক আওয়াল, ডঃ গৌরাঙ্গ বনিক, কলিন ব্র্যাডি, সুজান ব্র্যাডি, জাহিদ, ব্রায়ান ফায়সন। রিনা গুপ্ত, ডঃ সাহজাদ হাশমি, আহমেদ হোসেন, ডঃ অনিতা জ্যাকসন, রাজ জামাদাগনি, জন ক্যাসার্গিস, মুসাদ্দেক খান, প্রশান্ত কলিপোরা, রাজন লুথরা, ভ্যাংকাট মিসালা, আরিফ মার্চেন্ট, অতুল পার্বাতিয়ার, মেহুল রাজা, ডঃ রক্তিম সেন, সিরাজ শরীফ, হ্যারী স্ট্যালী প্রমুখ।

ডঃ মুহাম্মদ আলী ভূঁইয়া যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে এই দেশকে ভালোবাসার পাশাপাশি নিজেদের নাগরিক অধিকারকে সমুন্নত করতে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর লক্ষে সকল অভিবাসী নাগরিকদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁকে সমর্থনসহ ভোট দেয়ার অনুরোধ করেন। সেইসাথে নির্বাচনে তাঁর মত একজন ভারতীয় উপমহাদেশীয় তথা এশিয়ান প্রার্থীকে কংগ্রেসে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ তৈরিতে জয়যুক্ত করার আহবান জানান। তিনি বলেন, “এই নির্বাচনের পরিবেশটি এবারে একটি দারুন সম্ভাবনার সুযোগ হিসেবে আমাদের মাঝে এসেছে এবং এই সুন্দর সুযোগটিকে কাজে লাগাতে হবে। অভিবাসী প্রার্থীর বিজয় অর্জনে এধরণের সুযোগ আগামী ৩০ বছরেও আসবে কিনা সন্দেহ রয়েছে”।

ডঃ ভূঁইয়া ডিসট্রিক্ট-৬ আসনের সকল বাংলাদেশিকে যার যার নিজের ভোটটি প্রদান করে বাংলাদেশিদের নতুন ইতিহাস রচনায় শরীক হওয়ার অনুরোধ জানান। এছাড়া যারা এখনও ভোটার হননি, তাদেরকে ভোটার হবার শেষ তারিখ আগামী ২০ মার্চের আগেই ভোটার হিসেবে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করার আহবান জানান ডঃ ভূঁইয়া।

এদিকে গত ৫ মার্চ রোববার সংগঠক হুমায়ুন কবির কাওসারের উদযোগে আটলান্টায় বাংলাদেশি কমিউনিটির এক বসন্ত সন্ধ্যার আয়োজনেও মুহাম্মদ আলী ভূঁইয়া সকলের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও কুশল বিনিময় করেন। সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক রুমী কবির এসময় তাঁকে পরিচিত করিয়ে দিয়ে মঞ্চে আহবান করেন। জর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন এরপর এই বাংলাদেশি প্রার্থীকে ভোট দিয়ে প্রবাসীদের ভাবমূর্তিকে উজ্জ্বল করার জন্যে সকল আমন্ত্রিত অতিথির প্রতি অনুরোধ জানান। 

উল্লেখ্য, মুহাম্মদ আলী ভূঁইয়া যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের কংগ্রেসম্যান হিসেবে দ্বিতীয় বাংলাদেশি প্রার্থী। গতবছরের নভেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে কংগ্রেসম্যান প্রার্থী হয়ে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন এই একই  শহরের বাসিন্দা ডঃ রশিদ মালিক। তবে ডঃ ভূঁইয়া নির্বাচিত হলে তিনি প্রথম বাংলাদেশি কংগ্রেসম্যান হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে ইতিহাস নির্মাণ করবেন।

 

 

 

Print Friendly, PDF & Email