আটলান্টায় বাংলাধারার আয়োজনে ১৫ জুলাই গুণীজন সম্মাননা ও গানের সিডি’র মোড়ক উন্মোচন

0
167

জর্জিয়াবাংলা প্রতিবেদনঃ আগামী ১৫ জুলাই সন্ধ্যে সাড়ে ছয়টায় মেরিয়েটার ডেল্ক রোডস্থ মোটেল-৬ মিলনায়তনে বাংলাধারা’র উদযোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে যন্ত্রসংগীতের সংগঠন সঙ্গীতকার ও সংগীত শিল্পী তাসলিমা সুলতানা পলি’র নিজ নিজ গানের এ্যালবামের সিডির মোড়ক উম্মোচন এবং গুণীজন সম্মাননা।

স্মরণ করা যেতে পারে, সংগীতকার গত তিন যুগ ধরে মেধা, প্রজ্ঞা ও নিষ্ঠা দিয়ে আটলান্টার সাংস্কৃতিক অংগনকে সমৃদ্ধ করে আসছে। বাংলাদেশ, ভারত, আফগানিস্তান- ভারতীয় উপমহাদেশের এই তিন দেশের গুণী কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে বেহালা, সেতার, রবাব, তবলা, গিটারসহ বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের সমন্বয়ে বাংলা, হিন্দিসহ ধ্রুপদী সংগীতের নানা গানের কোরিওগ্রাফী ও সুরের ব্যঞ্জনা তৈরির মাধ্যমে প্রবাসে গুনগত চৌকশ মানের নিজস্ব অবস্থান করে নিয়েছে।

সঙ্গীতকারের অন্যতম শিল্পী প্রয়াত রাফী আকবর জাদা’র স্মরণে উৎসর্গ করা হয়েছে তাদের দ্বিতীয় এ্যালবাম।

আর ছায়ানটের সাবেক শিক্ষিকা তাসলিমা সুলতানা পলিও দীর্ঘ সময় ধরে আটলান্টায় বসবাস করছেন এবং  সংগীতের প্রতিভা দিয়ে মুগ্ধ করছেন আটলান্টাসহ প্রবাসের হাজারো বাঙালির প্রাণ। সেইসাথে পলি বাংলা সংগীত ও সাংস্কৃতিক চর্চাকে নতুন প্রজন্মের মাঝে বিকশিত করতে একটি স্কুলের মাধ্যমে তার নিবেদিতপ্রাণ সাধনা অব্যাহত রেখেছেন।

তাসলিমা সুলতানা পলি’র প্রথম গানের সিডি “ছুঁয়ে দিলি মেঘ” ।

আর তাই সঙ্গীতকারের দ্বিতীয় এ্যালবাম, যেটি সংগঠনের অন্যতম গুণী শিল্পী প্রয়াত রাফী আকবর জাদার স্মরণে উৎসর্গীকৃত এবং তাসলিমা পলি’র প্রথম গানের এ্যালবাম “ছুঁয়ে দিলি মেঘ”- এই দুইটি সিডি’র আনুষ্ঠানিক মোড়ক উন্মোচনের একটি প্রানবন্ত অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত গত সপ্তাহের সভায় চূড়ান্ত করেছে বাংলাধারা।

বাংলাধারা’র মনোনীত সম্মাননাপ্রাপ্ত গুণী শিল্পী ও সংগঠক গোলাম মহিউদ্দিন।

অন্যদিকে এই একই অনুষ্ঠানের আরেকটি পর্বে আটলান্টার দীর্ঘদিনের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে একইসাথে সাংগঠনিকভাবে ও শিল্পী-কুশলী হিসেবে নিবেদিতপ্রাণ চর্চার মাধ্যমে নিরন্তর এগিয়ে চলার তিন ব্যক্তিত্ব যথাক্রমে গোলাম মহিউদ্দিন, অমিতাভ সেন ও এম এইচ আকমলকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হবে। বাংলাধারা এই তিন গুণীজনকে তাদের কাজের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এই সম্মাননা প্রদানের জন্যে মনোনীত করেছে। এই তিন জনের মধ্যে অমিতাভ ওপার বাংলার শিল্পী-সংগঠক হলেও বাংলাদেশী কমিউনিটিতে তিনি গত তিন দশক ধরে নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালায় কখনো ব্যক্তিগতভাবে আবার কখনো সঙ্গীতকারের একজন গুণী শিল্পী ও সংগঠক হিসেবে সম্পৃক্ত থেকেছেন। বিশেষ করে নব্বইয়ের দশকে জর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতির কমিনিটি সেন্টার প্রকল্পের তহবিল সংগ্রহের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সমুহে তার অবদান ছিল স্মরণ করবার মত।

বাংলাধারা’র মনোনীত সম্মাননাপ্রাপ্ত গুণী শিল্পী ও সংগঠক অমিতাভ সেন।

অপর দুই গুণী শিল্পী-সংগঠক গত ত্রিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে আটলান্টাসহ উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন শহরে নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পারফর্মেন্সসহ সাংগঠনিক দক্ষতা ও একনিষ্ঠতা মাধ্যমে প্রবাসে বাঙালির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখার প্রচেষ্টায় আত্মনিয়োগ করে চলেছেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে সংগীতকারসহ তাসলিমা সুলতানা পলির জনপ্রিয় কিছু গানের পরিবেশনা দর্শক-শ্রোতাদেরকে নির্মল আনন্দ ও সুরের আবহে মন্ত্রমুগ্ধ করতে সক্ষম হবে বলে আয়োজক সংগঠন থেকে জানানো হয়েছে।

বাংলাধারা’র মনোনীত সম্মাননাপ্রাপ্ত গুণী শিল্পী ও সংগঠক এম এইচ আকমল।

বাংলাধারার সমন্বয়ক মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া, যুগ্ম সমন্বয়ক রুমী কবির ও নির্বাহী পরিচালক রেজওয়ান আহমেদ হৃদয় উক্ত ভিন্নমাত্রার প্রাণোচ্ছল আয়োজনে সকল প্রবাসী বাংলাদেশিকে অংশগ্রহণের সাদর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, বাংলাধারা বিগত প্রায় একযুগেরও বেশি সময় ধরে আটলান্টায় ‘মুক্ত চিন্তার সুস্হ ধারা’র স্লোগানকে সামনে রেখে প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করে যাচ্ছে এবং সেই সাথে বিভিন্ন কর্মকান্ডের ভেতর দিয়ে প্রবাসে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে তাদের শেকড়ের সাথে।

Print Friendly